করোনায় অর্থনৈতিক নকশা বদলের সুযোগ এসেছে: ড. ইউনূস

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে শুধু মানুষের দুর্ভোগ আর অর্থনৈতিক ক্ষতিই হচ্ছে না, এর ফলে দেশের মধ্যে তো বটেই আন্তর্জাতিক বিভেদও প্রকট হয়ে উঠেছে। তবে করোনার এই সংকটকে অর্থনীতি পুনর্গঠনের মোক্ষম সুযোগ হিসেবে দেখছেন শান্তিতে নোবেল পুরস্কার বিজয়ী এবং গ্রামীণ ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা ড. মুহাম্মদ ইউনূস। বুধবার জাপানভিত্তিক সংবাদমাধ্যম নিক্কেই এশিয়ান রিভিউকে দেয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন।

এশিয়ান রিভিউয়ের প্রশ্নোত্তরে ড. ইউনূস জানান, পুরোনো ব্যবসায়িক পদ্ধতি পরিচালিত হচ্ছে শুধু ব্যক্তিস্বার্থের লাভের ভিত্তিতে। কিন্তু একজন সামাজিক উদ্যোক্তা হিসেবে তার আশা, এ পদ্ধতি বদলে সমাজের সাধারণ লাভের পদ্ধতি চালু হওয়া দরকার। এ অর্থনীতিবিদের মতে, ব্যক্তিগত লাভ সম্পূর্ণ শূন্য এমন দর্শনের ভিত্তিতে নতুন অর্থনৈতিক ব্যবস্থা চালু করতে হবে।

করোনাভাইরাস মহামারি বিশ্বব্যাপী মানুষের জীবনযাত্রায় কী প্রভাব ফেলছে- এমন প্রশ্নের জবাবে মুহাম্মদ ইউনূস বলেন, পুরোনা বিশ্ব বৈশ্বিক উষ্ণায়ন, সম্পদ কেন্দ্রীভূতকরণ এবং কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার মাধ্যমে আনা ব্যাপক বেকারত্বে এই গ্রহে আমাদের অস্তিত্বকে প্রায় শেষ পর্যায়ে নিয়ে এসেছে। করোনাভাইরাসের আগে বিশ্ব যেখানে ছিল সেখানে আর কখনোই ফেরত যাওয়া উচিত নয়। আমাদের নতুন দিকে যেতে হবে যেখানে ওইসব ভয়ঙ্কর জিনিস থাকবে না।

করোনা সংকটে ব্যবসার ভূমিকা কী জানতে চাইলে তিনি বলেন, বর্তমান ব্যবস্থায় সব মানুষ ব্যক্তিস্বার্থে তাড়িত হচ্ছে। ব্যবসা হচ্ছে সেই উপকরণ যার মাধ্যমে সে ব্যক্তিস্বার্থ হাসিল করে। এটি বদলাতে হলে আমাদের অর্থনীতির ভিত্তিতে যেতে হবে। অর্থনৈতিক মানুষকে স্বার্থান্বেষী হিসেবে সংজ্ঞায়নের পরিবর্তে এমন ব্যক্তি হিসেবে সংজ্ঞায়িত করতে হবে, যিনি ব্যক্তিস্বার্থ এবং সাধারণ স্বার্থ উভয়ের মাধ্যমেই পরিচালিত হয়।

 

 

 


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *