৩রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৯শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

যুদ্ধবিরতিতে রাস্তায় নেমে উল্লাস প্রকাশ করেন গাজার বাসিন্দারা

newsup
প্রকাশিত মে ২২, ২০২১
যুদ্ধবিরতিতে রাস্তায় নেমে উল্লাস প্রকাশ করেন গাজার বাসিন্দারা

নিউজ ডেস্কঃ টানা ১১ দিন ধরে চলা ইসরায়েল-হামাসের মধ্যকার সংঘাতের অবসান হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার মধ্যরাত থেকে রক্তক্ষয়ী এ সংঘাতের অবসান হয় বলে জানিয়েছে বিবিসি। ওইদিন রাত ২টার দিকে ইসরায়েলের পক্ষ থেকে যুদ্ধবিরতির ঘোষণার পর গাজার হাজার হাজার বাসিন্দা রাস্তায় নেমে উল্লাস প্রকাশ করেন। ইসরায়েল ও হামাস দুপক্ষই দাবি করছে, এ লড়াইয়ে তাদের বিজয় হয়েছে।

এদিকে এ যুদ্ধবিরতিকে স্বাগত জানিয়েছেন জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনসহ বিশ্বনেতারা। তাদের আশা এ যুদ্ধবিরতি দীর্ঘস্থায়ী হবে। তবে দুপক্ষের যুদ্ধবিরতি ঘোষণার কয়েক ঘণ্টা পরেই গতকাল শুক্রবার জুমার নামাজের পর বায়তুল আকসায় ইসরায়েলি পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ান ফিলিস্তিনিরা।

ইসরায়েল ও হামাসের মধ্যে এবারের সহিংসতায় ২৪০ জনের বেশি মানুষ নিহত হয়েছে। গাজায় ইসরায়েলি হামলায় অন্তত ২৩২ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। তাদের মধ্যে ১০০ জনের বেশি নারী ও শিশু। আহত হয়েছে ১ হাজার ৭০০ জনের বেশি ফিলিস্তিনি।

গতকাল রয়টার্স এক প্রতিবেদনে বলেছে, রমজান মাস শেষে বিশ্বজুড়ে ঈদ উদযাপিত হলেও গত সপ্তাহে সেই উৎসব ঠিকঠাক করতে না পারা গাজার অনেক বাসিন্দাকেই দেখা গেল বৃহস্পতিবার রাত ২টার দিকে রাস্তায় নেমে এসে হামাস ও ইসরায়েলের মধ্যে ১১ দিনের রক্তক্ষয়ী সংঘাত শেষে আসা যুদ্ধবিরতির ঘোষণায় উল্লাস প্রকাশ করতে। গভীর রাতে শহরটির বিভিন্ন অংশে আরবিতে সেøাগান উঠল, ‘আল্লাহ মহান, তাকে ধন্যবাদ।’ প্রধান সড়কগুলোতে গাড়ির ভিড়, হর্নে কানে তালা লেগে যাওয়ার দশা, জানালা দিয়ে উল্লসিত মানুষের পতাকা ওড়ানো আগের সব যুদ্ধবিরতি বা বন্দিবিনিময়ের সময়ের মতো এবারও গাজাকে এমন উৎসবমুখরই দেখা গেছে।

যুদ্ধবিরতি কার্যকর হওয়ার পর শহরটির বিভিন্ন মসজিদের লাউডস্পিকারে হামাস যোদ্ধাদের ভূয়সী প্রশংসা করা হয়। ঘোষিত হয় ‘সোর্ড অব জেরুজালেম যুদ্ধে দখলদারদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ যোদ্ধাদের বিজয়’। উল্লসিত অনেককে দেখা যায় শূন্যে গুলি ছুড়তে। কেউ কেউ ব্যস্ত শব্দবোমা ফাটাতে কিংবা আতশবাজি পোড়াতে।

আনন্দিত অনেককেই এ সময় একে অপরের সঙ্গে কোলাকুলি করতে দেখা যায়। অনেকে আবার স্লোগান দিচ্ছিলেন ইসরায়েলের ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ তালিকায় থাকা হামাসের এক শীর্ষ সামরিক কমান্ডারের নাম ধরে, দেড় সপ্তাহের যুদ্ধে যাকে মারতে তেল আবিবের বেশ কয়েকটি চেষ্টা ব্যর্থ হয় বলে খবর স্থানীয় গণমাধ্যমগুলোর।

‘দখলদারদের বিরুদ্ধে এ এক অসাধারণ জয়। আমাদের প্রতিরোধ যোদ্ধারা তাদের যুদ্ধবিরতিতে বাধ্য করেছে। আজ থেকেই ঈদ শুরু হচ্ছে। অনেকে ঘরবাড়ি ও আত্মীয়স্বজন হারিয়েছেন। তা সত্ত্বেও আমরা উৎসব করব’ বলেছেন বন্ধুদের সঙ্গে আনন্দ উৎসবে শামিল হওয়া ৩০ বছর বয়সী আহমেদ আমের।

ইসরায়েলের যুদ্ধবিরতিতে রাজি হওয়াকে নিজেদের ‘বিজয়’ হিসেবে দেখছে হামাস। দলটির এক নেতাকে উদ্ধৃত করে বিবিসি জানিয়েছে, এটা ফিলিস্তিনি জনগণের ‘বিজয়’ এবং ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর ‘পরাজয়’। হামাস নেতারা এও বলেছেন, ঘোষণা এলেও যুদ্ধবিরতি চুক্তির খুঁটিনাটি চূড়ান্ত না হওয়া পর্যন্ত তারা সতর্ক অবস্থায় থাকবেন।

মিসরের প্রেসিডেন্ট আবুল ফাত্তাহ সিসিকে উদ্ধৃত করে দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন জানিয়েছে, যুদ্ধবিরতি দুই পক্ষ মানছে কি না, তা পর্যবেক্ষণের জন্য মিসরীয় নিরাপত্তা কর্মকর্তারা ইসরায়েল ও ফিলিস্তিন যাচ্ছেন।

মিসরের পাশাপাশি কাতার এবং জাতিসংঘও দুপক্ষকে যুদ্ধবিরতিতে রাজি করানোর ভূমিকায় ছিল বলে জানিয়েছে বিবিসি।

 


সংবাদটি পড়ে ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

https://www.booked.net

+22
°
C
+22°
+19°
London
Monday, 29

 

See 7-Day Forecast