২রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৮ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৩শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

মানসিক অসুস্থতার ঝুঁকিতে শিশুরা

newsup
প্রকাশিত জুন ১, ২০২১
মানসিক অসুস্থতার ঝুঁকিতে শিশুরা

নিউজ ডেস্কঃ  ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজায় সম্প্রতি টানা ১১ দিনের বিমান হামলায় মানসিক বৈকল্যের শিকার হয়েছে হাজার হাজার শিশু। কাতারভিত্তিক গণমাধ্যম আল–জাজিরা এ খবর জানায়।

ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাসের সঙ্গে যুদ্ধবিরতি প্রতিষ্ঠার পর গাজার অধিবাসীরা ইসরায়েলের নির্বিচার বোমা হামলার দুঃস্বপ্ন ও ধকল কাটিয়ে উঠে বিধ্বস্ত–ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘরে ওঠার চেষ্টা করছে। সেই সঙ্গে গাজার মায়েরা ও স্বাস্থ্যকর্মীরা এমন উদ্বেগ, আশঙ্কা প্রকাশ করছেন যে ইসরায়েলের সহিংসতার ফলাফল হিসেবে গাজার শিশুদের দীর্ঘদিন ধরে মানসিক ক্ষতি বয়ে বেড়াতে হতে পারে।

গাজার উত্তরাঞ্চলীয় বেইত হানুন এলাকার বাসিন্দা হালা সেহাদা ২৮ বছর বয়সী একজন মা। তিনি আল–জাজিরাকে বলেন, মে মাসের শুরুর দিকে ইসরায়েলি বাহিনী যখন বিমান হামলা শুরু করল, তখন ২০১৪ সালে গাজায় চালানো ইসরায়েলের রক্তক্ষয়ী অভিযানের মর্মস্পর্শী স্মৃতিগুলো তাঁর মনে ভেসে উঠছিল। মনে হচ্ছিল, এই তো ‘গতকালই’ ওই হামলা শেষ হলো। এখনই আবার হামলা।

সেহাদা বলেন, ‘গাজায় সাম্প্রতিকতম হামলা আমাকে ছয় বছর আগের ঘোর অন্ধকারাচ্ছন্ন স্মৃতিতে ফিরিয়ে নিয়ে যায়। ওই বছর আমার স্বামী নিহত হন। কিন্তু এবার আমার অবস্থা আরও খারাপ। আমার ছয় বছর বয়সী মেয়ে টোলেন ওর বাবা নিহত হওয়ার পাঁচ মাস পর জন্মগ্রহণ করে। এবারের বোমা হামলায় ছোট্ট মেয়েটা আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়েছে।’

অবরুদ্ধ এ উপত্যকায় সাম্প্রতিকতম বোমা হামলায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতির শিকার হয়েছে শিশু ও কিশোর–কিশোরীরা। ইসরায়েলের বিমান থেকে বোমাবর্ষণ এবং ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় নিহত হয়েছে ২৫৩ জন ফিলিস্তিনি। তাদের মধ্যে শিশুই ৬৬টি। হামলায় আহত হয়েছে অনেক শিশুসহ ১ হাজার ৯০০–এর বেশি মানুষ।

ব্যাপক আন্তর্জাতিক চাপের মুখে গত ২১ মে ইসরায়েল হামাসের সঙ্গে যুদ্ধবিরতিতে উপনীত হয়েছে। কিন্তু বহু গাজাবাসীর দুর্দশা ঘোচেনি। ইতিপূর্বে ২০১৪ সালে গাজায় ইসরায়েলি বাহিনীর ৫১ দিনের বোমা হামলায় তাঁদের অনেকে এক দফা মানসিকভাবে ক্ষতির সম্মুখীন হয়। সেই ক্ষতি পুরোপুরি না কাটতেই আবার হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। ওই অভিযানে নিহত হন ২ হাজার ২০০–এর বেশি ফিলিস্তিনি। তাদের মধ্যে শিশুই ৫০০।

২০১৪ সালে ইসরায়েলের নৃশংস বোমা হামলা চলাকালে সেহাদা ছিলেন নববধূ। তিনি চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা থাকা অবস্থায় তাঁর স্বামী সাংবাদিক খালেদ হামাদ বোমায় প্রাণ হারান। তখন এমনও দিন গেছে, যখন এক রাতে ইসরায়েলের হামলায় অন্তত ৬৭ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।

উভয় লড়াইয়ে নিজের অভিজ্ঞতার কথা জানান সেহাদা। বলেন, ‘গাজায় বসবাসের অর্থ হলো সময়ে সময়ে মানসিক বৈকল্যের শিকার হওয়া।’


সংবাদটি পড়ে ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

https://www.booked.net

+22
°
C
+22°
+19°
London
Monday, 29

 

See 7-Day Forecast