৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৯শে রবিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

এবার সবার সঙ্গে হাঁটু গেড়ে বসলেন ডি কক

newsup
প্রকাশিত অক্টোবর ৩০, ২০২১
এবার সবার সঙ্গে হাঁটু গেড়ে বসলেন ডি কক
স্পোর্টস ডেস্কঃ বর্ণবাদবিরোধী ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ আন্দোলনে সমর্থন দিতে অসম্মতি জানানোয় গত মঙ্গলবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে একাদশে জায়গা পাননি কুইন্টন ডি কক।

ইংল্যান্ডের জনপ্রিয় ক্রীড়াবিষয়ক সংবাদমাধ্যম ‘স্কাই স্পোর্টস’ দাবি করে, বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনে হাঁটু গেড়ে না বসায় বিশ্বকাপ থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে ডি কককে।

এসব নিয়ে টানা কয়েকদিন আলোচনা-সমালোচনার মধ্যে বৃহস্পতিবার নিজের অবস্থান পরিষ্কার করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকান এ ওপেনার।

কেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচে খেলেননি এবং এর আগের ম্যাচে কেন হাঁটু গেড়ে বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনে সমর্থন জানাননি, সে ব্যাখ্যায় সাবেক এ অধিনায়ক।

বলেছেন, শুরুতেই আমার সতীর্থ ও দেশের সমর্থকদের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি। আমি কখনই এটিকে ইস্যু বানাতে চাইনি। বর্ণবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের গুরুত্ব আমি ভালোভাবেই বুঝি এবং খেলোয়াড় হিসেবে আমাদের যে উদাহরণ সৃষ্টি করার দায়িত্ব আছে, সেটিও জানি।

তিনি আরও বলেন, যদি আমি হাঁটু গেড়ে বসলে অন্যরা শিক্ষিত হতো এবং অন্যদের জীবন সহজ হয়ে যেত, আমি খুশিমনেই তা করতাম। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে না খেলে আমি কাউকে অসম্মান করতে চাইনি, ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলকে তো কোনোভাবেই না। অধিকাংশ মানুষ হয়তো বুঝতে পারেনি, ম্যাচ খেলার পথে, মঙ্গলবার সকালে হঠাৎ আমাদের এটি জানানো হলো।

নিজেকে বর্ণবাদবিরোধী দাবি করে ডি কক বলেন,  আমার কারণে যে দুঃখ, বিভ্রান্তি ও ক্রোধের সৃষ্টি হয়েছে, এ জন্য আমি দুঃখিত। এমন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে এতদিন চুপ ছিলাম আমি। কিন্তু এখন মনে হচ্ছে, একটু ব্যাখ্যা দেওয়া দরকার। যারা জানে না, আমি নিজেই মিশ্র বর্ণের পরিবার থেকে এসেছি। আমার সৎবোনেরা কৃষ্ণাঙ্গ, আমার সৎমা কৃষ্ণাঙ্গ। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে এখন আন্দোলন হচ্ছে বলেই না, জন্মের পর আমার জীবন থেকেই ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটারস। কোনো একক ব্যক্তির চেয়ে সব মানুষের অধিকার নিশ্চিত করা ও সবার মধ্যে সমতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সবারই অধিকার আছে এবং সেগুলো গুরুত্বপূর্ণ— এটি শিখেই আমি বড় হয়েছি।

তবে কেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষের ম্যাচে হাঁটু গেড়ে বসে ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটারে আন্দোলনে সমর্থন দেননি ডি কক?

তিনি বলেন, আমি বুঝতে পারছিলাম না, যেখানে প্রতিটি দিন যখন সব ধরনের মানুষের সঙ্গে থাকি, তাদের ভালোবাসি, তা হলে কেন একটা আচরণ দিয়ে সেটি আমাকে প্রমাণ করতে হবে। আপনাকে যখন কোনো আলোচনা ছাড়া কিছু করতে বলা হয়, তখন আমার মনে হয়েছে পুরো ব্যাপারটি অর্থহীন। আমি যদি বর্ণবাদী হতাম, আমি খুব সহজে হাঁটু গেড়ে বসতে পারতাম এবং মিথ্যা বলতে পারতাম, কিন্তু সেটি ভুল হতো এবং ভালো একটা সমাজ এতে সৃষ্টি হতো না। আমার সঙ্গে বেড়ে উঠেছে যারা, আমার সঙ্গে যারা খেলেছে, তারা জানে আমি কেমন মানুষ। একজন ক্রিকেটার হিসেবে আমাকে অনেক নামেই ডাকা হয়েছে। আমি আমার সব সতীর্থকে ভালোবাসি। এবং দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে ক্রিকেট খেলার চেয়ে বেশি আর কিছুই ভালোবাসি না।


সংবাদটি পড়ে ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

https://www.booked.net

+22
°
C
+22°
+19°
London
Monday, 29

 

See 7-Day Forecast